অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করার কারণে ট্রলার ডুবি

একটি মাজারে ওরসে যাওয়ার সময় অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করার কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

ঘাটের কাছেই বসে ছিলেন স্থানীয় বাসিন্দা ওলি মাহমুদ। তিনি বলছেন, “নৌকাটি ছাড়ার পরপরই ঘাটের কাছে উল্টে যায়। একপাশে যাত্রী বেশি হওয়ায় হেলে গিয়েছিলো। তারপর পুরো উল্টে যায়।”

প্রতি বছরের মতো স্থানীয় গনি শাহ মাজারে ওরসে অংশ নিতে ট্রলারে করে রওয়ানা হয়েছিলেন দেওয়ানের চর ও বারৈচা গ্রামের মানুষজন।

বাংলাদেশে নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলায় আড়িয়াল খাঁ নদে একটি ট্রলার ডুবে নয়জন মারা গেছে। এর মধ্যে চার শিশু ও দুজন বৃদ্ধা রয়েছে বলে জানিয়েছেন রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আজহারুল ইসলাম সরকার।

রায়পুরা উপজেলার জংলি শিবপুর ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই ট্রলারটি উল্টে যায়।

তিনি সহ স্থানীয় অনেকেই সাথে সাথে উদ্ধার কাজে লেগে পড়েন।

মিঃ মাহমুদ বলছেন, “তীরের কাছে দুর্ঘটনা ঘটনায় অনেকেই সাঁতার কেটে চলে আসতে পারেন। আমরা যারা ছিলাম মহিলা ও বাচ্চাদের তীরে নিয়ে আসি। উদ্ধারের পর আমরা বেঁচে যাওয়া যাত্রীদের অটোরিকশায় করে মেডিকেলে পাঠিয়ে দেই।”

তিরিশ চল্লিশ জন ধারণ ক্ষমতার ট্রলারটিতে শতাধিক যাত্রী নেয়াতেই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আজহারুল ইসলাম সরকার।

মিঃ সরকার বলছেন, নরসিংদী জেলায় কোনো ডুবুরি না থাকায় ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে একটি ডুবুরী দল ঘটনাস্থলে পৌছায় দুপুরের পর।

নিখোঁজ কেউ আছে কীনা তার খোঁজে ডুবুরীরা ঘটনাস্থলে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে উপজেলা প্রশাসন থেকে মরদেহ সৎকার ও আক্রান্তদের সহায়তায় কাজ করা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে।

 

Leave a Reply

Go Top
%d bloggers like this: