শ্বাসকষ্ট নিরাময়ের যুগান্তকারী উপায় আবিষ্কার করলেন গবেষকরা

ডেইলি বিডি নিউজ অনলাইন ডেস্ক:

শ্বাসকষ্টে বহু মানুষকেই প্রচণ্ড কষ্ট করতে হয়। বহু চিকিৎসাতেও কার্যকরভাবে এ রোগটি নিরাময় সম্ভব হয় না। কিন্তু সম্প্রতি গবেষকরা জানিয়েছেন, তারা শ্বাসকষ্ট সম্পূর্ণভাবে নিরাময়ের গবেষণায় একটি যুগান্তকারী উপায় আবিষ্কার করেছেন। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হাফিংটন পোস্ট।
নতুন গবেষণায় মূলত শ্বাসকষ্টের প্রভাব কমানোর জন্য একটি জিন আবিষ্কৃত হয়েছে, যার নাম এডিএএম৩৩। এটি শ্বাসকষ্টের জন্য অন্যতম দায়ী জিন বলে মনে করছেন গবেষকরা।
শ্বাসকষ্টের জন্য দায়ী এ জিনটি দেহে একধরনের এনজাইম তৈরি করে। এ এনজাইমটি দেহের বায়ু চলাচলের পথে মাংসপেশিগুলোর সঙ্গে সংযুক্ত। এনজাইমের প্রভাবে যে কোষগুলো ফুসফুসের বায়ু চলাচলের পথে থাকে সেগুলো পরিবর্তিত হয়ে যায়। এতে শ্বাসকষ্ট শুরু হয়।
শ্বাসকষ্টের জন্য চিকিৎসকরা নানা ধরনের ওষুধ ব্যবহার করেন। এগুলো সাময়িকভাবে কাজ করলেও দীর্ঘমেয়াদে কার্যকর হয় না। কিন্তু নতুন এ আবিষ্কার দীর্ঘমেয়াদে শ্বাসকষ্ট নিরাময় করতে পারবে বলে মনে করছেন গবেষকরা। গবেষণাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে জার্নাল অব ক্লিনিক্যাল ইনভেস্টিগেশন-এ।
যে পদ্ধতিতে এ চিকিৎসাটি করা হবে তা শুনতে মোটেও কঠিন বলে মনে হবে না। কারণ গবেষকরা বলছেন, এ পদ্ধতিটি হলো যে জিনটি শ্বাসকষ্টের জন্য দায়ী সে জিনটিকে নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া। এক্ষেত্রে যে নির্দিষ্ট টিসুটি বায়ু চলাচলের পথে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে সেটি আর এ কাজটি করবে না।
যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব সাউদাম্পটনের একটি গবেষক দল এ যুগান্তকারী আবিষ্কার করেছে। তারা জানিয়েছেন, অ্যালার্জি কিংবা এ ধরনের কারণে বায়ু চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায়। আর এ কাজটি যেন না হয় সেজন্য বেশ কিছু উপায় নিয়ে গবেষণা করেছেন তারা। গবেষণায় যথেষ্ট অগ্রগতিও হয়েছে।
গবেষকদলের সদস্য ও ইউনিভার্সিটি অব সাউদাম্পটনের প্রফেসর হ্যানস মাইকেল হ্যাইটচি বলেন, সাধারণ অ্যালার্জির কারণে যে বায়ু চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে শ্বাসকষ্ট হয় তা এ জিন চিকিৎসায় অনেকাংশে নিরাময় করা সম্ভব হয়েছে।
এখনও চিকিৎসা পদ্ধতিটি গবেষণাগারেই সীমাবদ্ধ রয়েছে। এরপর তা সফল হলে পরবর্তী ধাপে পরীক্ষামূলকভাবে কিছু রোগীর দেহে ব্যবহৃত হবে। সেখানে সফলতা পেলে তবেই সাধারণ রোগীদের জন্য এ পদ্ধতি ব্যবহৃত হবে। তবে কতদিনে এ চিকিৎসা পদ্ধতি সাধারণ রোগীদের জন্য উন্মুক্ত হবে, এ প্রশ্নের জবাব এখনও পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Go Top
%d bloggers like this: