অলিম্পিকের মশাল বহন করবেন প্রফেসর ইউনূস

ব্রাজিলের রিও-তে অনুষ্ঠেয় এবারের অলিম্পিক গেমসে অলিম্পিক মশাল বহনের সম্মান দেয়া হচ্ছে নোবেল জয়ী প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট টমাস বাখ কর্তৃক তিনি এ সম্মানে ভূষিত হবেন।
গত ২১শে এপ্রিল অলিম্পিক গেমসের জন্মস্থল গ্রিসের অলিম্পিয়া নগরীতে ঐতিহ্যবাহী অলিম্পিক মশাল প্রজ্বালনের মাধ্যমে রিও অলিম্পিক মশালের যাত্রা শুরু হয়। ব্রাজিলে অলিম্পিক মশালযাত্রা শুরু হয় ৩রা মে। রাজধানী ব্রাজিলিয়া থেকে শুরু হয়েছে এ মশাল যাত্রা। সারা দেশ পরিভ্রমণের পর রিও ২০১৬ অলিম্পিকের মশালযাত্রা শেষ হবে ৫ই আগস্ট মারাকানা স্টেডিয়ামে অলিম্পিক গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। প্রফেসর ইউনূস ৪ঠা আগস্ট রিও-তে অলিম্পিক মশালযাত্রার শেষ পর্বে মশাল বহন করবেন। ওইদিন তিনি অলিম্পিক কমিটির সভায় ভাষণ দেবেন। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আগত জাতীয় অলিম্পিক কমিটিসমূহের প্রতিনিধিরা এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন।

প্রফেসর ইউনূস অ্যাথলেটিকস, সামাজিক ব্যবসা এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহ অর্জনে পৃথিবীর নতুন কল্পচিত্র নিয়ে বক্তব্য রাখবেন। একেবারে তৃণমূল থেকে বৈশ্বিক পর্যায়ে অ্যাথলেটিকস এবং স্পোর্টস জগতের মধ্যে একটি সামাজিক মাত্রা সংযোজন করার উদ্দেশ্যে ড. ইউনূস ও আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি একযোগে কাজ করে যাবেন। সামাজিক ব্যবসা সৃষ্টির মাধ্যমে পৃথিবীব্যাপী মানুষের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সকল অনুষ্ঠান, ভেন্যু ও সংগঠন  যেন উদ্যোগ নেয় এ ব্যাপারে তারা কাজ করবেন।
অলিম্পিক গেমসের শুরু খ্রিষ্টপূর্ব ৭৭৬ সালে গ্রিসের অলিম্পিয়াতে। খ্রিষ্টপূর্ব ৭৭৬ সাল থেকে ৩৯৩ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত এই গেমস প্রতি চার বছর পর পর অনুষ্ঠিত হয়। প্রাচীন অলিম্পিক গেমস ১,১৭০ বছর স্থায়ী হয়। আধুনিক গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক প্রথম চালু হয় ১৯৮৬ সালের ২৪শে মার্চ গ্রিসের রাজধানী এথেন্সে। অলিম্পিক মশাল বহনের প্রথা চালু হয় ১৯৩৬ সালে জার্মানির বার্লিনে অনুষ্ঠিত গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে। রিও অলিম্পিক হবে আধুনিক অলিম্পিক গেমসের ৩১তম অনুষ্ঠান। যেখানে ৪২টি বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলার উপর প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।
ড. মুহাম্মদ ইউনূস গতকাল থেকে ব্রাজিলে অবস্থান করছেন। আগামী ৯ই আগস্ট পর্যন্ত তিনি ওই দেশে থাকবেন।

উৎসঃ মানবজমিন

Leave a Reply

Go Top
%d bloggers like this: