জঙ্গি সন্দেহে শাবির আরেক ছাত্র আটক

জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস থেকে ইফফাত আহমেদ চৌধুরী নামের এক শিক্ষার্থীকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গতকাল মঙ্গলবার আটক এই শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং (আইপিই) বিভাগের চতুর্থবর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারে পড়েন। এর আগে একই অভিযোগে ওই বিভাগের ছাত্র আজিজকে আটক করা হয়। এদিকে চট্টগ্রামে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য সন্দেহে গ্রেপ্তারকৃত পাঁচজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের হেফাজতে (রিমান্ড) পেয়েছে পুলিশ।

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের আইপিই বিভাগের (সি বিল্ডিংয়ের) সামনে থেকে ইফফাত আহমেদ চৌধুরীকে আটক করা হয়। তিনি সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার নিজকুড়া গ্রামের খালেদ চৌধুরীর ছেলে। তাঁরা বর্তমানে সিলেট নগরের ৫৭, উদ্দীপন মীরাবাজার এলাকার বাসিন্দা। ইফফাত সিলেট জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন। এর আগে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে একই বিভাগের ছাত্র আব্দুল আজিজকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। পরে পুলিশ জানিয়েছিল, আব্দুল আজিজ জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের বিশ্ববিদ্যালয় সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করছিলেন। তিনি আটক ইফফাতের সহপাঠী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর জাহিদ হাসান শিক্ষার্থী আটকের বিষয়টি কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, জালালাবাদ থানা পুলিশের উপস্থিতিতে ইফফাতকে আটক করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, এই শিক্ষার্থীকে প্রাথমিক জিঙ্গাসাবাদ চলছে। তিনি যদি দোষী হন তবে তাঁর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জালালাবাদ থানার ওসি আক্তার হোসেন বলেন, ইফফাত আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য। পাঁচ আনসারুল্লাহ সদস্যের রিমান্ড : পতেঙ্গা থানা এলাকা থেকে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য সন্দেহে গ্রেপ্তারকৃত পাঁচজনের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আবদুল কাদের।

গতকাল শুনানি শেষে তিনি এ আদেশ দেন। রিমান্ড মঞ্জুরের বিষয়টি কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী। তিনি বলেন, ‘আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের পাঁচ সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তদন্তকারী কর্মকর্তা ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানিয়েছিলেন। আদালত শুনানি শেষে প্রত্যেককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।’ এই পাঁচ আসামি হলেন চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ভূজপুর থানার দাঁতমারা ইউনিয়নের তারাখো গ্রামের মো. আক্কাছ আলী ওরফে জাহেদুল ইসলাম ওরফে নয়ন (২৩), নগরীর ডবলমুরিং থানাধীন সিরাজদ্দৌলা বাড়ি এলাকার মো. আতিকুল হাসান ইমন (২৬), হাটহাজারী উপজেলার আমানবাজার এলাকার তালুকদার বাড়ি এলাকার জামশেদুল আলম হৃদয় (২১), রাউজান উপজেলার পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের হাজি দেলা মিয়া বাড়ি এলাকার মো. রুবেল (২৬) ও বান্দরবানের লামা উপজেলার হায়দারনাশি এলাকার মো. মহিউদ্দিন (১৮)। –

সূত্রঃ কালের কণ্ঠ

Leave a Reply

Go Top
%d bloggers like this: