ফেসবুকে তোলপাড় >> বিরোধী ৩৫ নিউজ পোর্টাল বন্ধ ‘ বাকশাল ইন একশান’

“জালিম যখন ভয়ে কাঁপে তখন মানুষের গলা চেপে ধরে।”

দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার অনলাইন ভার্সন এবং অনলাইন নিউজ পোর্টাল শীর্ষ নিউজসহ ৩৫টি নিউজ সাইট বন্ধ করে দিয়েছে সরকার।

সরকারের বক্তব্য, ‘জনস্বার্থ’ ও ‘জননিরাপত্তা’জনিত কারণে সাইটগুলো বন্ধ করা হয়েছে।

এদিকে বিরোধী রাজনীতির সাথে সংশ্লিষ্ট শীর্ষস্থানীয় নিউজ পোর্টালগুলো বন্ধের সংবাদে সামাজিক মাধ্যমে তোলপাড় শুরু হয়েছে। সরকারের পদলেহী সংবাদমাধ্যমের বিকল্প হিসেবে নতুন অনেক সাইট বস্তুনিষ্ঠ খবর পরিবেশন করে পাঠকপ্রিয়তা অর্জন করেছিল। সরকার এগুলো বন্ধ করে দিল।

শিশির নামে একজন তার ফেইসবুকে লিখেছেন- “প্রেস ফ্রিডম’ যখন ‘জনস্বার্থ ও জননিরাপত্তা’র জন্য হুমকি! কী সুন্দর!

এখানে বলে রাখা ভাল, বন্ধ করা ৩৫টির মধ্যে কিছু নামকাওয়াস্তে পত্রিকা থাকতে পারে যা যাচাইবাছাই না করে বকওয়াস প্রচার করে যাচ্ছিল সাংবাদিকতার মাথা খেয়ে। তাদেরকে বন্ধ করা যেতেই পারে। কিন্তু সেটাও হওয়া উচিত স্বচ্ছভাবে, সঠিক কারণটি প্রামাণ্যভাবে প্রদর্শন করে। আর এভাবে নামকাওয়াস্তে চলা পোর্টাল কিন্তু বাংলাদেশে মোট ৩৫টি বা তার চেয়ে কম নয়! বরং অনেক অনেক বেশি। তো, শুধু বাছাই করে ৩৫টির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা কী উদ্দেশ্যে?”

ইমতিয়াজ মির্জা এ সংক্রান্ত খবর শেয়ার করে লিখেছেন “বাকশাল ইন অ্যাকশন”।

দিপ্র হাসান লিখেছেন, “জালিম যখন ভয়ে কাঁপে তখন মানুষের গলা চেপে ধরে।”

লেখক আহমেদ আরিফ লিখেছেন, “স্বামী-স্ত্রীর গোপন সমস্যা কিংবা ইন্ডিয়ান কোন নায়িকার শরীরের সাইজ কতটা আকর্ষনীয় এমন ছবি পাবলিশ করা নিউজ সাইট ছিলনা শীর্ষ নিউজ।শীর্ষ নিউজের পাঠকের সংখ্যা বাকশালপন্থী অন্য নিউজ পোর্টালগুলোর চাইতে কম ছিল এটাই সত্য। আর এই সত্যের পেছনে কারণ ছিল যৌন সুড়সুড়ি দিয়ে নিউজ সাইট হিট করাতে বিশ্বাসী ছিলেন না সম্পাদক একরাম ভাই।

বিনোদন পাতার দেখে এমন একজন একবার ভারতীয় নায়িকার হালকা উত্তেজক টাইপের একটি ছবি দিয়েছিল। একরাম ভাই নিউজটি মুছে দিয়ে বলেছিলেন,’শীর্ষ নিউজ সেক্সুয়াল নিউজ সাইট না।’ শীর্ষ নিউজের পাঠকদের বড় একটি অংশ ছিল সচেতন,রুচিসম্পন্ন।

আপনারা অনেকেই জানেন না শীর্ষ নিউজের একটি সাপ্তাহিকী আছে যেটা নিয়ে সচিবলায়ের বেশীর ভাগ সরকারী কর্মচারী আতংকে থাকে।কারণ, অনেকের দূর্নীতির লুঙি খুলেছে এই সাপ্তাহিকী।

২য় বারের মত সরকার বন্ধ করল শীর্ষ নিউজ।ধন্য বাকশাল।”

শীর্ষ নিউজ সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম লিখেছেন,

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, শীর্ষ নিউজ বন্ধ করে দেওয়ায় আজ থেকে বেকারের খাতায় আমাদের নাম লিখাতে হবে। এতে করে আপনাদের কী লাভ হল? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, শীর্ষ নিউজ ওপেন করে দিয়ে আমাদেরকে কাজ করে খাওয়ার ব্যবস্থা করে দিন।

Leave a Reply

Go Top
%d bloggers like this: