দেশের পররাষ্ট্রনীতি এখন পুরোই ভারত অনুগত >> ওআইসি ছেড়ে ভারত ও মোদীর পাশে হাসিনা

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা প্রেস ট্রাষ্ট ওফ ইন্ডিয়া জানিয়েছে ওআইসি কাশ্মীর স্বাধীনতাকামীদের সমর্থনে দিয়েছে। সাথে তারা এটাও বলেছে চলমান বিরোধে পাকিস্থানের পাশে আছে মুসলিম দেশের সংস্থাটি। ইসলামি সম্মেলন সংস্থার মহাসচিব আয়াদ আমিন বলেছেন, ভারতের উচিত কাশ্মীরে নির্যাতন বন্ধ করা । ভারতকে জাতিসঙ্ঘের গৃহীত প্রস্তাব অনুযায়ী কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করার আহবান জানান তিনি । তিনি আরো বলেন, চলমান বিরোধে ওআইসি পাকিস্থানের পাশে থাকবে। জনাব আয়াদ আমিন নিউইয়র্কে জাতিসঙ্ঘের সম্মেলন চলাকালে পাকিস্থানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রধান উপদেষ্টা সারতাজ আজিজের সাথে সাক্ষাতকালে এই আহবান জানান । গত সোমবার প্রকাশিত এক বিবৃতিতে ওআইসি মহাসচিব কাশ্মীর জনগণের ন্যায় সঙ্গত দাবী মেনে নেয়ার জন্য ভারত সরকারের প্রতি আবারো দাবি জানান ।

ওদিকে মুসলিম বিশ্বের প্রভাবশালী দেশ সৌদি আরব জানিয়েছে তারাও কাশ্মীরিদের পক্ষেই আছেন । অপরদিকে বাংলাদেশ সরকারী সংবাদ সংস্থা ( বাসস) ও ভারতপন্থি বিডিনিউজ২৪ জানাচ্ছে কাশ্মীর সংকটে শেখ হাসিনা সরকার ভারত ও নরেন্দ্র মোদির পাশেই আছেন। এনিয়ে হাসিনা মোদীকে বার্তাও পাঠিয়েছেন।

মজার ব্যাপার হচ্ছে দ্বিতীয় বৃহৎ মুসলিম দেশ হিসেবে ওআইসির বাইরে এসে ভারতকে সমর্থন জানানো নজিরবিহীন ঘটনা । এছাড়া বাংলাদেশের মানুষ কাশ্মীরের স্বাধীনতাকামী নির্যাতিত মানুষদের পক্ষেই সহানুভূতিশীল । তার পরেও হাসিনা সরকার জনমতের কোন তোয়াক্কা না করেই শতভাগ ভারতপন্থি নীতি কিভাবে নিয়েছেন এটা সবার বিস্ময় ।

অনেকে বলছেন, দেশের সব নীতিই যেভাবে ভারত নিয়ন্ত্রণ করছে সেক্ষেত্রে ওআইসি বা মুসলিম বিশ্বকে বাদ দিয়ে হাসিনার ভারতপন্থি হওয়াতে মোটেও অবাক করা কিছু নাই। ভারতের উপর নির্ভরশীল অনির্বাচিত সরকার জনমতের তোয়াক্কা না করাই স্বাভাবিক।

Leave a Reply

Go Top
%d bloggers like this: