Warning: count(): Parameter must be an array or an object that implements Countable in /customers/4/a/c/dailybdtimes.com/httpd.www/wp-includes/post-template.php on line 284

‘শেখ হাসিনা নতুন মাহাথির’ : পাগল শেখ হাসিনার ইজ্জত বাড়াতে ছাগল বোরহানের ভুয়া সংবাদ প্রসব

[সৈয়দ বোরহান কবির নামে সাংবাদিক নামধারী একব্যক্তি ‘বাংলা ইনসাইডার’ নামে একটি নিউজ পোর্টাল চালায়। বোরহান কবিরের মা ছিল শেখ হাসিনার বাসার গৃহকর্মী। তবে শেখ হাসিনার বাড়ির সাবেক স্টাফ মরহুম মতিউর রহমান রেন্টু একবার বলেছিলেন, অবিশ্বস্ত হওয়ার কারণে বোরহানের মা’কে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছিলেন শেখ হাসিনা।

তবে স্বার্থের কারণে শেখ হাসিনার সঙ্গে সম্পর্ক ধরে রেখেছে সৈয়দ বোরহান কবির। সেই বোরহান কবির এখন প্রায়শই শেখ হাসিনার পক্ষে আজগুবি সব খবর দেয়। দেখা যায় সবকটি নিউজ ভুয়া ও ভিত্তিহীন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এক ঘরোয়া আলাপে মন্তব্য করে বলেছেন, শেখ হাসিনার ইজ্জত বাড়ানোর নামে বোরহান কবির নিজের বীরাঙ্গনা মা’য়ের অপমানের প্রতিশোধ নিচ্ছে কিনা এ ব্যাপারে আমাদের সতর্ক থাকা উচিত। ]

‘বিডিফ্যাক্ট চেক’ নামে একটি নিউজ পোর্টাল বোরহান কবিরের ‘বাংলা ইনসাইডার’ এর ভুয়া নিউজ চেক করে দেখেছে পুরাই ভুয়া। ডেইলি বিডিটাইমস এর পাঠকদের জন্য নিউজটি তুলে ধরছি।

 

বোরহানের নিউজের শিরোনাম ছিল ‘ শেখ হাসিনা নতুন মাহাথির’.

জাহেদ আরমান : সিডনী বিশ্ববিদ্যালয়ের “গভরমেন্ট অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল পলিটিক্স” এর অধ্যাপক জন কিন তাঁর এক নিবন্ধে শেখ হাসিনাকে  ”নতুন মাহাথির” উল্লেখ করেছেন বলে বাংলা ইনসাইডার যে সংবাদ প্রকাশ করেছে তার সত্যতা মিলেনি।

গত ১০ মার্চ “শেখ হাসিনা নতুন মাহাথির” শিরোনামে বাংলা ইনসাইডার এর ওই সংবাদে বলা হয়,  “দুই নেতার [মাহাথির মোহাম্মদ ও শেখ হাসিনা] মিলগুলো তুলে ধরেছেন সিডনী বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘গভরমেন্ট অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল পলিটিক্স’ এর অধ্যাপক জন কোয়েন। তিনি তাঁর নিবন্ধে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘এশিয়ার নতুন মাহাথির’ হিসেবে সম্বোধন করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘মাহাথির যেমন মালয়েশিয়াকে পাল্টে দিয়েছে। তেমনি শেখ হাসিনাও দারিদ্র্যের শৃঙ্খল থেকে বাংলাদেশকে মুক্ত করেছেন।’ জন বলেছেন, ‘মাহাথিরের সমালোচনাগুলো যেমন কালের গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে, রয়ে গেছে শুধু তাঁর কীর্তি। শেখ হাসিনাও হয়তো সে পথেই এগুচ্ছেন।”

এই সংবাদের সূত্র ধরে বিডি ফ্যাক্টচেক ইমেইলে যোগাযোগ করে সিডনী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই প্রফেসর জন কিনের সঙ্গে। ইমেইলে বাংলা ইনসাইডারে প্রকাশিত ইংরেজি ভার্সনের লিংক দিয়ে তাঁর মতামত চাওয়া হয়।

প্রফেসর জন কিনকে করা ইমেইলের স্ক্রিনশট।

ইমেইল করার দুইঘন্টার মধ্যেই তিনি উত্তর দেন। এতে তিনি বলেন, “এটা একটা ফেইক নিউজ। আমি কখনওই এরকম কিছু বলিনি।”

Leave a Reply

Go Top
%d bloggers like this: